Basic Info BD https://www.basicinfobd.com/2022/02/blog-post_14.html

কিভাবে উইন্ডোজে হ্যাকিনটোস ব্যবহার করতে পারবেন বিস্তারিত

বর্তমানে বাজারে কম্পিটারের জন্য অনেক গুলো অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে। ম্যাক,উইন্ডোজ,লিনাক্স ইত্যাদি। আমরা জানি প্রতিটি অপারেটিং সিস্টেমই আলাদা আলাদা, একটিকে অন্যটির মধ্যে অপারেট করা যায় না। যেমন আমরা অনেকেই আছি যারা ম্যাক ইউজ করতে পারি না ,কেননা এটা অনেক এক্সপেনসিভ।তাই আজ আমরা ম্যাক এর বিভিন্ন কাজ উইন্ডোজে হ্যাকিনটোস পদ্ধতিতে কিভাবে করব তা জানব। 


পেজ সুচিপত্রঃ-

হ্যাকিনটোস কি?

ম্যাক এর অপারেটিং সিস্টেমকে যখন ম্যাক এ ব্যবহার করা হবে তখন একে বলা হবে ম্যাকেনটোস। আর যখন ম্যাক এর অপারেটিং সিস্টেমকে সাধারণ উইন্ডোজ পিসিতে ব্যবহার করা হবে তখন একে বলা হবে Hackintosh। এর মানে আপনি ম্যাক ওএস কে হ্যাক করে উইন্ডোজে ব্যবহার করছেন। অর্থাৎ ম্যাক ওএস কে নরমাল পিসিতে ব্যবহার করার সিস্টেম কেই বলা হয় হ্যাকেনটোস।

হ্যাকিনটোস কেন করব?

আমরা সবাই জানি অ্যাপেলের প্রোডাক্ট গুলো যেমন- ম্যাক, আইপ্যাড ইত্যাদি অনেক এক্সপেনসিভ। তাই ইচ্ছা থাকলেও অনেকেই ব্যবহার করতে পারি না। অনেক সময় আই ফোনের আই ক্লাউড আন লক করার মত বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন আমরা হই । আর এই কাজ গুলো করার জন্য আমরা যারা ম্যাক, আই প্যাড ব্যবহার করতে পারি না। ঠিক তাদের জন্যই সাধারণ পিসি তে হ্যাকিনটোস পদ্ধতি।

যেখানে হ্যাকিনটোস কিনবেন?

কি হ্যাকিনটোস কেনার কথা শুনে কি অবাক হয়ে গেলেন? ঠিক তাই আপনি কখনো হ্যাকিনটোস কিনতে পারবেন না। তবে আপনার সাধারণ পিসিতে হ্যাকিনটোস করার জন্য গুগল এ গিয়ে ল্যাপটপের নাম, মডেল এবং Hackintosh লিখে সার্চ করতে হবে। আর যদি ডেক্সটপ হয় তাহলে প্রসেসর এর নাম, মাদার বোর্ড এর মডেল এবং হ্যাকেনটোস লিখে সার্চ দিলে হ্যাকেনটোস এর লিংক চলে আসবে। 

অন্যদিকে অ্যাপেলের যে অপারেটিং সিস্টেম প্রয়োজন তা কিনতে হবে। অপারেটিং সিস্টেমটি অ্যাপেল সেলস পয়েন্ট অথবা অনলাইন থেকেও নিতে পারেন। অনলাইন থেকে ফ্রি তে ডাইনলোড করার জন্য এই লিংকে যেতে হবে। 

হ্যাকিনটোস কি ভাবে করব? 

এতক্ষন আমরা হ্যাকিনটোস সমন্ধে জানলাম। এখন আমরা জানব আমাদের সাধারণ পিসি কে কিভাবে হ্যাকিনটোস করব। তো ,তার আগে কিছু কথা বলে নিই। Hackintosh ইন্সটল প্রকৃয়া একটু জটিল এটি এক এক পিসির ক্ষেত্রে এক এক রকম হতে পারে। অনেক সময় দেখা যায় কিছু পিসিতে অনেক ফাংশান থাকে না, অনেক টুলস এর লিংক মিসিং থাকে ইত্যাদি। এ জন্য অনেক প্র্যাক্টিস এর প্রয়োজন হতে পারে। 


এখন আমরা আমাদের সাধারণ পিসিতে কিভাবে হ্যাকেনটোস করব এ ব্যাপারে ধারণা নিই। উইন্ডোজের যেমন অনেক ভার্সন রয়েছে যেমন - এক্সপি, উইন্ডোজ সেভেন,উইন্ডোজ টেন ইত্যাদি। তেমনি ম্যাক অপারেটিং সিস্টেমেও অনেক ভার্সন রয়েছে, যেমন- শিরা,মোজাবি, ক্যাটলিনা ইত্যাদি। এখন আমরা যদি ম্যাক অপারেটিং সিস্টেম মোজাবি উইন্ডোজে ইন্সটল করতে চাই তাহলে গুগলে গিয়েআমাকে যেটা লিখতে হবে তা হল ম্যাক ওএস মোজাবি ইন্সটল অন এইচপি ল্যাপটপ। 

এখানে Hp 15-ay034nl ল্যাপটপ আমরা ধরে নিলাম। আপনার পিসির মডেল যেটা আপনি সেটা লিখে সার্চ দিবেন। তো সার্চ দিলে আপনি রেজাল্টে অনেকগুলো ইন্সটলের সিস্টেম দেখতে পাবেন। যেহেতু আমি আগেই বলেছি Hackintosh ইন্সটল প্রকৃয়া একটু জটিল, তাই হ্যাকিনটোস ইন্সটল এর সময় অনেকগুলো টিউটরিয়াল, পোস্ট,পাবেন যেগুলো প্র্যাক্টিক্যালি আপনার কাজকে সহজ করে দিবে।

হ্যাকিনটোস এ সমস্যা

হ্যাকিনটোস এ সমস্যা অস্বাভাবিক কোন বিষয় নয়। আমরা যেখানে অ্যাপেল এর অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ পিসিতে ব্যবহার করছিসেখানে সমস্যা দেখা দিতেই পারে। এর দুই ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে, একটি হার্ডওয়ার গত সমস্যা অন্যটি সফটওয়্যার গত সমস্যা। হার্ডওয়ার গত সমস্যা গুলো হল মাদার বোর্ড, র‍্যাম, প্রসেসর এর সাথে ম্যাক অপারেটিং সিস্টেমের সামঞ্জস্যতা না হলে হ্যাং, ওভার হিট, এমন কি মাদার বোর্ড বার্নও হতে পারে। 

আর সফটওয়্যার গত সমস্যা গুলো হল কোন অ্যাপস প্রোপারলি ভাবে কাজ করবে না। আপনাকে এ ব্যাপারে যথেষ্ট কেয়ারফুল হতে হবে। কারণ অফিসিয়াল সাপোর্ট না পেয়ে কোন সফটওয়্যার আপডেট বিরক্তিকর হতে পারে। আর এ ভাবে চলতে থাকলে Hackintosh প্রোপারলি কাজ করবে না। ফলে কম্পিটার টি একটি সাধারণ উইন্ডোজ কম্পিউটারের ন্যায় কাজ করবে।

তাই এটি সমাধান করার জন্য আপনাকে কি করতে হবে এবং কি ভাবে করবেন তা জানা জরুরী, আর তা হল আপনি সবকিছু পুনরায় ইন্সটল করবেন এবং সেই আপডেট টি ইন্সটল করবেন না যেটি অফিসিয়াল নয় সেটি খুজে বের করতে হবে। সংক্ষেপে আমি বলব যে, হ্যাকিনটোস টি কাজ বন্ধ করেদেবে যদি আমরা না জানি আমরা কি ইন্সটল করছি।   

পরিশেষে বলব Hackintosh ইন্সটল প্রকৃয়া একটু জটিল হলেও টকনোলজির জগতে এ এক নতুন এক্সপেরিয়েন্স। অ্যাপেলের ম্যাক, আই প্যাড অনেক দামি ডিভাইস গুলো না কিনে সাধারণ পিসিতে অ্যাপেলের অপারেটিং সিস্টেম রান করানো এ এক অসাধারণ বুদ্ধিমত্তার পরিচয় এবং প্রযুক্তির ব্যবহারের পরিপুর্ণতা প্রকাশ পায়। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন